পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম হাশেমী

পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের সান্নিধ্য লাভ করেছেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আল্লামা কাজী মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম হাশেমী (৯২) মঙ্গলবার বন্দর নগরীর আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নুরুল ইসলাম হাশেমীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডঃ মনির আজাদ জানান, হৃদরোগ, নিউমোনিয়া, ডায়াবেটিস ও কিডনিজনিত সমস্যা নিয়ে ৩০ মে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। গতকাল সকালে উনার অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছিল। দুপুরে উনার মাইল্ড স্ট্রোক হয়। এরপর অবস্থার অবনতি হতে থাকে। শেষ পর্যন্ত তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। করোনাভাইরাস শনাক্তে পরীক্ষার জন্য হাশেমী সাহেবের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে তার জ্বর বা কাশি ছিল না।

মঙ্গলবার রাত ৯টায় জালালাবাদ দরবারে হাশেমীয়া আলিয়াতে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

আহলে সুন্নাত ওয়াল জমাআতের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম হাশেমী ১৯২৮ সালে নগরীর বায়েজিদ থানার জালালাবাদ বটতল এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন।

নুরুল ইসলাম হাশেমী তখনকার সময়ের প্রখ্যাত আলেম আল্লামা মুফতি সৈয়দ আমীমুল এহছান মুজাদ্দেদী বরকতী(ক.) সান্নিধ্যে থেকে ইলমে হাদীস, ফেকাহ, তাফসীর ইত্যাদি বিষয়ের উপর গবেষণা করেন। ১৯৫২ সালে হযরত মুফতী সাহেব (র.) তাঁকে “নাইলুল মুরাম বে-আসানিদে আশ্ শায়খ নূরুল ইসলাম” বিশেষ সনদ ও সম্মাননা প্রদান করেন।

আল্লামা হাশেমী ১৯৮০ সালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অঙ্গসংগঠন হিসেবে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা গঠনে গুরু দায়িত্ব পালন করেন। সুন্নী আকিদাভিত্তিক একমাত্র রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টে সক্রিয়ভাবে অংশ নিয়ে প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা‘আতের কেন্দ্রীয় পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান, আহলে সুন্নাত সম্মেলন সংস্থা-বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা, এদেশের আ‘লা হযরত চর্চা ও গবেষণার সংগঠন আ‘লা হযরত ফাউন্ডেশন-বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা, জাতীয় ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক।

তিনি বটতল আহসানুল উলুম জামেয়া গাউসিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা, চট্টগ্রাম জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসা এবং পাঁচলাইশ ওয়াজেদিয়া আলিয়া মাদ্রাসার সাবেক শায়খুল হাদীস ছিলেন। তিনি চট্টগ্রামের বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত ছিলেন এবং বেশ কয়েকটি ধর্মীয় গ্রন্থেরও রচয়িতা। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, (১) নসীহাতুত্ তালেবীন। (২) যাদুল মুসলেমীন। (৩) আকাঈদে বাতেলা। (৪) সত্যের আহবান। (৫) আদ্দুররুত-দলায়ল বে-কেরাহতিল জামাতে ফিন্ নাওয়াফেল। (৬) আল আরবাইন ফি মুহিম্মাতিদ্ দ্বীনে। (৭) মেরাজুল মু’মিনিন। (৮) মুসলমানদের সম্বল পরহেজগারদের দিশারী। (৯) ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) কেন? (১০) নূরে মোস্তফা। (১১) আল্লামা আহ্ছানুজ্জমান হাশেমী (রহঃ)-এর জীবনী গ্রন্থ। (১২) শাযরাতুয যাহাব। (১৩) দো‘আর ভা-ার। (১৪) তাযকেরাতুল কেরাম। (১৫) ওয়াযায়েফে হাশেমীয়া।

প্রখ্যাত এই আলেমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী, বিএনপি নেতা আবদুল্লাহ আল নোমান, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, সাবেক মেয়র মনজুর আলম, সাবেক সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম।

নিউজটি শেয়ার করুন
Total Page Visits: 100 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *