সাংবাদিককে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক মো.আবদুর রহিমকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন সাংবাদিক আবদুর রহিম।

তবে ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন আসামীরা। এ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সংবাদকর্মীরা।

সাংবাদিক আবদুর রহিমসহ স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় একটি মসজিদে তালা দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে তার ওপর হামলা করে। এ সময় ৬-৭ জনের একটি সন্ত্রাসী দল সাংবাদিক আবদুর রহিমের উপর দা, রড, লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। পরে সন্ত্রাসীরা রহিমকে এলোপাথাড়ি পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা রহিমের মাথায় অাঘাত করলে মাথাত গুরুতর জখম হয়। পরে সাংবাদিক রহিমের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে মনোহরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

১৩ জুন (শনিবার) বিকেলবেলা উপজেলার মৈশাতুয়া ইউনিয়নের ছিখটিয়া সড়কের বড় বাড়ির রাস্তার মাথায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনায় সাংবাদিক আব্দুর রহিম বাদী হয়ে উপজেলার ছিখটিয়া (গণ্ডামারা) গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার সোলেইমান মিয়া এবং তার তিন পুত্র সবুজ, সুমন ও মিলনকে আসামী করে মনোহরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তবে মামলা দায়ের হওয়ার ৭ দিন পার হলেও এখনো আসামীরা গ্রেফতার হয়নি। বরং আসামীরা মামলা তুলে নিতে আবদুর রহিমকে হুমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এসব বিষয়ে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এই প্রসঙ্গে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মনোহরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো.মিলন মিয়া জানান, সাংবাদিক আবদুর রহিমের উপর হামলার ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। তবে এই মামলার আসামীরা পলাতক থাকায় তাদেরকে এখনো গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

সাংবাদিক আব্দুর রহিম উপজেলার হাটিরপাড় গ্রামের মো.আসলাম মিয়ার ছেলে।

নিউজটি শেয়ার করুন
Total Page Visits: 130 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *